Home প্রবাস দুই বাংলাদেশির হত্যাকারীকে ধরতে বাফেলো পুলিশের পুরুস্কার ঘোষণা

দুই বাংলাদেশির হত্যাকারীকে ধরতে বাফেলো পুলিশের পুরুস্কার ঘোষণা

by bnbanglapress
Published: Updated:
A+A-
Reset

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের বাফেলো শহরে কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তের বন্দুকের গুলিতে দুই বাংলাদেশির হত্যাকারীকে ধরিয়ে দিতে সাড়ে সাত হাজার ডলার পুরুস্কার ঘোষণা করে ঘাতকের ছবি প্রকাশ করেছে বাফেলো পুলিশ। সেই কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তকে ধরতে পুলিশও মরিয়া হয়ে উঠেছে। স্থানীয় সময় রোববার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে ফিলমোর জামে মসজিদের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে এসে প্রবাসী বাংলাদেশিদের তোপের মুখে পড়েন বাফেলো সিটি মেয়র বাইরেন ডাব্লিউ ব্রাউন ও বাফেলো পুলিশ কমিশনার জোসেফ গোমালিয়া। প্রবাসীদের প্রশ্নের জবাব দিতে না পেরে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।
বাফেলো পুলিশ খুনি কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তের নাম প্রকাশ করেনি। শুধুমাত্র সিসিটিভি ফুটেজ থেকে অপরাধীর একটি ছবি প্রকাশ করে অপরাধীর সন্ধানদাতাকে সাত হাজার ডলার পুরুস্কার দেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেন।
গত শনিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বাফেলোর ইস্ট ফেরি ও জেনার স্ট্রিটের ১০০ ব্লকে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আবু সালেহ মোঃ ইউসুফ জনি (৫৩)ও কুমিল্লার লাঙ্গলকোর্টের বাবুল মিয়া (৫০) নামের দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করে কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে বাফেলো শহর।
গত রোববার বাফেলোর পুলিশ কমিশনার জোসেফ গ্রামাগলিয়া বলেছেন, শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জরুরি ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে জেনার স্ট্রিটের ১০০ ব্লকের একটি বাসভবনে। যেখানে দুই পুরুষকে গুলি করা হয়েছিল। পরে দুজনকেই মৃত ঘোষণা করা হয়। ক্রাইম স্টপার ডব্লিউএনওয়াই রোববার নিহতদের বাফেলোর বাসিন্দা বাবুল মিয়া এবং আবু ইউসুফ হিসাবে চিহ্নিত করেছে।
গ্রামাগ্লিয়া বলেন, যে দুইজন লোক সেখানে কাজ করার জন্য বাড়িতে ছিল।বাড়িটি ছিল বিক্রির জন্য ছিল। তারা কাজ বন্ধ করে বারান্দায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। নিহতদের একজনকে বাসভবনের বারান্দায় গুলি করা হয় আর একজনকে রাস্তায় গুলি করা হয়।
কর্মকর্তারা শ্যুটিংয়ের সাথে জড়িত থাকতে পারে এমন একটি বিষয় সনাক্ত করার জন্য জনসাধারণের সাহায্যের জন্য জিজ্ঞাসা করছেন, এই বলে যে তারা তাদের সাথে “কথা বলতে চান”।
পুলিশ ঘাতকের ছবিগুলো সরবরাহ করেন, যাকে শনিবার জেনার স্ট্রিটে শেষ দেখা গিয়েছিল। গ্রামাগ্লিয়া জোর দিয়ে বলেন, যে বিষয়টিকে সশস্ত্র এবং বিপজ্জনক বলে মনে করা হয়। পুলিশ ও সমাজের কেউ চায় না যে তার মুখোমুখি হোক। যে কেউ এই বিষয়ে স্পট বা তথ্য আছে তাকে অবিলম্বে ৯১১ নম্বরে কল করতে বলা হয়েছে।
গ্রামাগলিয়া বলেন যে একটি সোয়াট ইউনিটসহ পুলিশ শনিবার শুটিংয়ের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন যে তারা বিশ্বাস করে যে সন্দেহভাজন বন্দুকধারী তখনও ওই বাড়িতে ছিল বলে একটি ঘের স্থাপন করা হয়েছিল। সার্চ ওয়ারেন্ট পাওয়ার পর পরে দেখা যায় ভেতরে কেউ নেই।
ভিডিও প্রচার করার পরে গ্রামাগলিয়া বলেন, শুটিংয়ের পরে বাড়িতে প্রবেশ করেছিল পুলিশ। যা আমাদের লক্ষ্যবস্তু ছিল। তবে ৯১১ কলের কয়েক মিনিটের মধ্যে পিছনের দরজা থেকে বেরিয়ে যায় ঘাতক।
আমাদের কাছে কৌশলগত দল, টহল অফিসার এবং গোয়েন্দারা ছিল। যারা এই ব্যক্তির জন্য আশেপাশের এলাকাগুলিকে খুঁজে বেড়িয়েছে।
গ্রামাগলিয়া আরও বলেন আমরা সেখান থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত আমাদের সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে তা জানতে পারি। যতক্ষণ না আমরা তাকে খুঁজে পাই, এটি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং সময়। ওই ব্যক্তিকে খুঁজে বের করার জন্য আমরা নিরলসভাবে কাজ করছি।

বিপি।এসএম

You may also like

Leave a Comment

কানেকটিকাট, যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত বৃহত্তম বাংলা অনলাইন সংবাদপত্র

ফোন: +১-৮৬০-৯৭০-৭৫৭৫   ইমেইল: [email protected]
স্বত্ব © ২০১৫-২০২৩ বাংলা প্রেস | সম্পাদক ও প্রকাশক: ছাবেদ সাথী