অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের সময় ১৮ বাংলাদেশি গ্রেফতার

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
৫ জুন, ২০১৮

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি: অবৈধভাবে টেক্সাস সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টাকালে ইউএস কাস্টমস অ্যান্ড বর্ডার প্রটেকশন (সিবিপি) কর্মিদের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন ১৮ জন বাংলাদেশি। টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের লারেডো চলতি সপ্তাহে পৃথক দু’টি অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বৃহস্পতিবার মেক্সিকোর নুয়েভো লারেডো সঙ্গে রিও গ্র্যান্ডে নদী পার হওয়ার সময় ৯ অবৈধ অভিবাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়। লারেডো সিবিপি কর্মকর্তারা জানান, সীমান্ত পাড়ি দেয়ার জন্য একটি দল চেষ্টা করছেন এমন খবর পেয়ে তারা অভিযানে নামেন এবং এবং ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেন। চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে অবৈধ বাংলাদেশিদের আরও দুটি দলকে গ্রেপ্তার করেছে লারেডোর সিবিপি কর্মকর্তারা।। গত সোম ও মঙ্গলবার অবৈধভাবে সীমান্ত পাড়ি দেয়ার সময় ৯ বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়।
কর্মকর্তারা আরও জানান, কেবল লারেডো সেক্টর দিয়েই গত বছরের ১ অক্টোবর থেকে চলতি মাস পর্যন্ত ২৭৪ জন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসব ব্যক্তিদের অধিকাংশই মেক্সিকোর দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ২৭৪ জনকে গ্রেপ্তার ছাড়াও রিও গ্র্যান্ডে নদী থেকে এক বাংলাদেশির মরদেহ উদ্ধার করেছেন তারা। ওই ব্যক্তি নদীতে ডুবে মারা গেছেন বলে জানান। পরে কর্মকর্তারা ওই মরদেহ ওয়েব কাউন্টি মেডিকেল এক্সামিনারের কাছে শনাক্তের জন্য হস্তান্তর করেন। মেডিকেল পরীক্ষা শেষে তারা জানান ওই মৃত ব্যক্তি ছিলেন একজন বাংলাদেশি।
ওই এলাকা দিয়ে বাংলাদেশি নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে অনুপ্রবেশের বিশেষ কোনো কারণ নেই। তবে মানবপাচারকারী চক্ররাই মূলত ওই রুটটি নিয়ন্ত্রণ করে থাকেন। তারাই ঠিক করে দেয় কারা কোন পথে সীমান্ত অতিক্রম করে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করবে।
মানবপাচারকারীরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের নিশ্চয়তা দিয়ে জনপ্রতি ২৫ থেকে ২৭ হাজার ডলার পর্যন্ত নিয়ে থাকেন। তারা প্রথমে বাংলাদেশিদের দক্ষিণ আমেরিকার একটী দেশে পাঠায় সেখান থেকে মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে টেক্সাসের লারেডো এলাকায় দফায় দফায় পাঠানোর চেষ্টা করে থাকেন বলে জানা গেছে।