যুক্তরাষ্ট্রে আটক ১৬০০ অভিবাসীকে কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
৮ জুন, ২০১৮

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি: যুক্তরাষ্ট্রে বৈধ কাগজপত্র না থাকায় আটক ১৬০০ অভিবাসীকে কেন্দ্রীয় সরকারি কারাগারে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। আটককেন্দ্রে পর্যাপ্ত বিছানা ছিল না বলে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।
অভিবাসন নীতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জিরো টলারেন্স নীতির কারণে ১ হাজার ৬শ অভিবাসীকে কারাগারে স্থানান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। মার্কিন অভিবাসন ও কাস্টমস বাহিনী (আইসিই)জানায়, বিকল্প ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত এটি সাময়িক ব্যবস্থা।
প্রায় ১ হাজার বন্দিকে ক্যালিফোর্নিয়ার কারাগারে পাঠানো হচ্ছে। ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস ও ওয়াশিংটনের কারাগারের ইউনিয়ন নেতারা জানান, এত অল্প সময়ে নতুন বন্দিদের জন্য ব্যবস্থা করা তাদের জন্য কঠিন হয়ে গেছে।
আইসিই এমন একটি নীতিমালা তৈরি করেছে যে এখন সীমান্ত পাড়ি দেওয়া অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া নিতে ফেডারেল কুশলীদের প্রয়োজন। আগের প্রশাসনের প্রথমবার সীমানা পাড়ি দিয়ে যারা যুক্তরাষ্ট্রে আসতো তাদের সিভিল ডিপোর্টেশন প্রক্রিয়া নেওয়া হতো। আইসিইর আটককেন্দ্রতেই শুনানি হতো।
কারাগারে স্থানান্তর করা ১৬০০ বন্দিকে ১২০ দিন সেখানে থাকতে হতে পারে। মার্কিন জাতীয় অভিবাসন ফোরামের নির্বাহী পরিচালক আলি নুরানি বলেন, ‘আমাদের ফেডারেল কারাগারগুলো সাধারণত বড় অপরাধে সাজাপ্রাপ্তদের জন্য তৈরি করা। সেখানে অভিবাসন সংক্রান্ত বন্দিদের রাখা উচিত নয়।’