দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে জয়ের রেকর্ড গড়লো লংকানরা।

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
২৪ জুলাই, ২০১৮

বাংলাপ্রেস অনলাইন:সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ করলো স্বাগতিক শ্রীলংকা। রঙ্গনা হেরাথের ৬ উইকেট শিকারে ম্যাচের চতুর্থ দিনেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কলম্বোতে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচ ১৯৯ রানের বড় ব্যবধানে জয় পায় লংকনরা। ফলে দুই ম্যাচের সিরিজে শ্রীলংকা ২-০ ব্যবধানে হারালো প্রোটিয়াদের। ২০০৬ সালের পর প্রথমবার প্রোটিয়াদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের রেকর্ড গড়লো লংকানরা।

গতকাল অর্থাৎ ম্যাচের তৃতীয় দিন শেষেই ম্যাচ জয়ের মঞ্চ তৈরি করেছিলো শ্রীলংকা। তৃতীয় দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৪৯০ রানের বড় টার্গেট দেয় লংকানরা। জয়ের জন্য বড় লক্ষ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে নেমে দিন শেষে ৫ উইকেটে ১৩৯ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। ফলে ম্যাচ জয়ের জন্য বাকী ৫ উইকেটে আরও ৩৪১ রান করতে হতো প্রোটিয়ারদের।

থিউনিস ডি ব্রুইন ৪৫ ও তেম্বা বাভুমা ১৪ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করেন। ব্যাট হাতে দারুণ লড়াই করেন ব্রুইন ও বাভুমা। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার দলীয় স্কোর ২শ’ পেরিয়ে যায়। এরধ্যে ব্রুইন ও বাভুমা দু’জনই হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন। টেস্ট ক্যারিয়ারের ১১তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেয়া বাভুমা ৬৩ রানে লংকান স্পিনার রঙ্গনা হেরাথের শিকার হন।

বাভুমা ফিরে যাবার পর ক্রিজে গিয়ে সুবিধা করতে পারেননি উইকেটরক্ষক কুইন্ট ডি কক। ৮ রান করে হেরাথের চতুর্থ শিকার হন তিনি। দলীয় ২৪৬ রানে সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে ডি কক ফিরে যাবার পর এক প্রান্ত আগলে খেলতে থাকেন ব্রুইন। শেষ পর্যন্ত নিজের ছয় টেস্টের ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি।

তিন অংকে পা দিয়ে নিজের স্মরণীয় ইনিংসটি বড় করতে পারেননি ব্রুইন। ২৩২ বলে ১০১ রান করে হেরাথের পঞ্চম শিকার হন ব্রুইন। তার ইনিংসে ১২টি চার ছিলো।ব্রুইন ফিরে যাবার ১০ রান পর অর্থাৎ, ২৯০ রানে গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। এই ইনিংসে ৯৮ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন শ্রীলংকার হেরাথ। এই নিয়ে ৩৪তমবারের মত পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নিয়েছেন তিনি। ম্যাচ ও সিরিজ সেরা হন শ্রীলংকার দিমুথ করুনারতে।টেস্ট সিরিজ শেষে আগামী ২৯ জুলাই থেকে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে শ্রীলংকা-দক্ষিণ আফ্রিকা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

শ্রীলংকা : ৩৩৮ ও ২৭৫/৫ডি, ৮১ ওভার (করুনারতেœ ৮৫, ম্যাথুজ ৭১, মহারাজ ৩/১৫৪)।

দক্ষিণ আফ্রিকা : ১২৪ ও ২৯০, ৮৬.৫ ওভার (ব্রুইন ১০১, বাভুমা ৬৩, হেরাথ ৬/৯৮)।

ফল : শ্রীলংকা ১৯৯ রানে জয়ী।

সিরিজ : দুই ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতলো শ্রীলংকা।

ম্যাচ সেরা : দিমথু করুনারতে (শ্রীলংকা)।

সিরিজ সেরা : দিমথু করুনারতে (শ্রীলংকা)।

বাংলাপ্রেস এফ/এস