লক্ষ্মীপুরে ২৪ ঘন্টায় ২০ জন করোনা রোগী শনাক্ত

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
২ এপ্রিল, ২০২১

সুলতানা মাসুমা, লক্ষ্মীপুর থেকে: গত (বুধবার) ২৪ ঘন্টায় লক্ষ্মীপুরে ২০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে সদর উপজেলার ১০ জন এবং অপর ৩ টি উপজেলায় ১০ জন। এই সময় ৬১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এনিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত সর্বমোট ২৪১৬ জন করোনা পজিটিভ রোগী পাওয়া গেছে।
আজ জেলা সিভিল সার্জন অফিসের প্রকাশিত প্রতিবেদনে ২০২১ সালের ৩ মাসে পরিসংখ্যান অনুযায়ী, জানুয়ারিতে ১৪ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৯ জন এবং মার্চ মাসে ৮৮ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।
এদিকে, গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছে ৮ জন। জেলায় মোট সুস্থ হয়েছে ২৩০৮ জন। মোট মারা গেছেন ৪৩ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৫ জন। এর মধ্যে ১ জন হাসপাতালে এবং বাকী ৬৪ হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসন ৯টি নির্দেশনা জারি:
লক্ষ্মীপুর জেলা দেশের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিসংখ্যানে প্রথম দিকে থাকায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসন ৯টি নির্দেশনা জারি করেছে।
গতকাল সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক মোঃ আনোয়ার হোসেন আকন্দ তার ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে এই নির্দেশনা সমূহ পোস্ট করেছেন।
নির্দেশনাগুলোর মধ্যে রয়েছে, কোন ধরণের জনসমাগম, মিছিল, সমাবেশ, উৎসব, অনুষ্ঠান, ওয়াজ মাহফিল,
ধর্মসভা এবং পর্যটন কেন্দ্র, বিনোদন পার্ক, কমিউনিটি সেন্টার, কোচিং সেন্টার, সিনেমা হল, ক্লাবসমূহ এবং অন্যান্য জনসমাগমস্থল পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।
ঘরের বাহিরে ও জনসমক্ষে এবং মসজিদ, মন্দিরসহ সকল ধর্মীয় উপাসনালয়, হাট-বাজার, বিপণী বিতান, হোটেল রেস্তোরা, শপিং মলের ক্রেতা- বিক্রেতা, কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ এবং অবস্থানকালীন সময়ে সকলকে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধানসহ সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।
গণপরিবহনে বাধ্যতামূলকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং ধারণ ক্ষমতার ৫০ ভাগের অধিক যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।অপ্রয়োজনীয় ঘোরাফেরা/ আড্ডা বন্ধ করতে হবে এবং জরুরী প্রয়োজন ছাড়া রাত ১০ টার পর বাইরে বের হওয়া যাবে না।
এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন করলে কিংবা মাস্ক ব্যতীত জনসমক্ষে বের হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগকজনক হারে খারাপ হওয়ার কারণে আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় জাতীয় সংসদের লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপ নির্বাচন ও কমলনগর উপজেলার ৩ টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।
গতকাল প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা প্রথম ধাপের ৩৭১টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন ও জাতীয় সংসদের লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপ নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছেন।
এ উপলক্ষে আয়োজিত সভায় নির্বাচন কমিশনারদের ব্যক্তিগত মত ছিলো করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি যে অবস্থায় পৌঁছেছে তাতে ১১ এপ্রিলের ওই সব নির্বাচন করা উচিত হবে না। এ অবস্থায় সভায় নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
১১ এপ্রিল লক্ষ্মীপুর-২ আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। এতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নৌকা প্রতীকে এডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য লাঙল প্রতীকে ফায়িজ উল্যাহ শিপন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
করোনা ভাইরাসের ২য় ঢেউ মোকাবেলায় ও সচেতনতা বাড়াতে লক্ষ্মীপুরে নানান উদ্যোগ হাতে নিয়েছে প্রশাসন। গতকাল বিকেলে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শহরের শতাধিক দোকানে “নো মাস্ক নো সেল”, “মাস্ক পরিধান ব্যতীত দোকানে প্রবেশ নিষেধ” লিখা পেস্টুন বিতরণ ও দৃশ্যমান স্থানে লাগানো হয়। এসময় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ জসিম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।
এরআগে মাস্ক না পরায় ৪ জনকে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম। এছাড়া তিনি সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ৫’শত মাস্ক বিতরন করেন।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুদ বলেন, করোনার ২য় ঢেউ মোকাবেলায় সবাইকে সচেতন হতে হবে। মাস্ক ছাড়া বাহিরে বের হওয়া যাবে না। আমাদের সচেতনতামূলক কর্মসূচি চলমান থাকবে।
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌর এলাকার বীরেন্দ্র খালের ওপর থাকা অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে ফেলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। গত সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের রাজস্ব শাখার সহকারী কমিশনার বরকত উল্যাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, ৭ এপ্রিলের মধ্যে খালের ওপর থাকা অবৈধ দখলদারদের স্থাপনা সরিয়ে ফেলার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদি তা না হয়, খাল দখলমুক্ত করতে আগামি ৮ এপ্রিল থেকে অভিযান চালিয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।
এর আগে জেলা প্রশাসন থেকে গত ২৯ মার্চ রামগঞ্জের বীরেন্দ্র খাল দখলমুক্ত করতে উপজেলা ভূমি অফিসসহ অবৈধ দখলদারদের চিঠি দেওয়া হয়। এতে বলে হয় ৭ দিনের মধ্যে অবৈধ দখলদাররা নিজ দায়িত্বে খালের ওপর থেকে তাদের স্থাপনা ও মালামাল সরিয়ে ফেলতে হবে। তা না হলে, ৮ এপ্রিল থেকে যে কোন সময় অভিযান চালিয়ে খাল দখলমুক্ত করা হবে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, বীরেন্দখাল প্রবাহমান ছিলো। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে অবৈধভাবে অসাধু ব্যবসায়ীরা স্থাপনা নির্মাণ করে ভোগ করে আসছে। এতে খাল দখল হয়ে পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে গেছে। ময়লা আবর্জনা ফেলায় খাল থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। একপর্যায়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে খালে ঘাস-লতাপাতায় ঘিরে আছে।

বিপি।এসএম