শৈলকুপায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ইউএনও’র স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
২৬ এপ্রিল, ২০২১

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের শৈলকুপার সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার (বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, গোপালগঞ্জ) মোঃ উসমান গণির স্বাক্ষর জাল করে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও মানহানিকর মন্তব্য লিপিবদ্ধ করা, দুইজন শিক্ষকের সুযোগ সুবিধা স্থগিত ও ৫০% ভাতা ভোগের সিদ্ধান্ত বলবৎ রাখার অভিযোগ উঠেছে শৈলকুপা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক দিলারা ইয়াসমিন জোয়ার্দ্দারের বিরুদ্ধে।

জানা যায় শৈলকুপা পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের এডহক কমিটি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড যশোর কর্তৃক ০৭/০৬/২০১৮ খ্রিঃ তারিখে শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সভাপতি হিসেবে মনোনীত দেয়। সদস্য সচিব হিসেবে দিলারা ইয়াসমিন জোয়ার্দ্দার ০৯/০৬/২০১৮ তারিখে দিনধার্য করে ০৮/০৬/২০১৮ তারিখে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভা আহব্বান করেন। কিন্তু উক্ত ১৯৯/১৮ নং সভার সভাপতির স্বাক্ষর হিসেবে সাবেক ইউএনও মোঃ উসমান গণির স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। পরের দিন ১০/০৬/২০১৮ খিঃ তারিখে পুনরায় ১৯৯/১৮ নং সভা দেখানো হয়েছে। এ বিষয়ে উসমান গণির কথা হলে তিনি বলেন ০৯/০৬/২০১৮ তারিখের সভার কার্যবিবরণীর স্বাক্ষর আমার না।

দিলারা ইয়াসমিন জোয়ার্দ্দারের বিরুদ্ধে দুইটি মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন। একটি সাংবাদিকদের মিথ্যা স্টাটাস দেওয়ায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ও বিদ্যালয়ের অফিস সহায়ক শহিদুল ইসলামের মারধরের মামলা। এদিকে ইউএনও উসমান গণির সভাপতিত্বে বেশির সভার কার্যবিবরণীতে টেম্পারিং করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক দিলারা ইয়াসমিন জোয়ার্দ্দারের প্রতারণা ও জালিয়াতির ঘটনা ফৌজদারী অপরাধ হওয়ায় উক্ত সভার কার্যবিবরণীর রেজুলেশন জব্দ পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী উঠেছে।