খেলা শেষে যা বললেন মাহমুদউল্লাহ

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বাংলাপ্রেস ডেস্ক: টানা তৃতীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের অপেক্ষা বাড়লো বাংলাদেশ দলের। কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে হোঁচট খেয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল। ১২৯ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ের ফলে ৫২ রানে হেরে যায় তারা।

খেলা শেষে পুরষ্কার বিতরণীতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, বোলাররা আজ খুব ভালো করেছে। তাদের নৈপুণ্যে ১৩০ রানের মধ্যেই নিউজিল্যান্ডকে আঁটকে দিয়েছে আমরা। তবে ব্যাট হাতে ভালো শুরু করে দ্রুত উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যাই। টপ টপ অর্ডার এবং মিডল অর্ডার কোনো জায়গায় মান সম্মত ব্যাটিং হয়নি।

রিয়াদ আরও বলেন, তবে আমরা প্রত্যাশিত মানের ব্যাটিংয়ে করতে পারিনি। দুই একটা পার্টনারশিপ গড়তে পারলে ম্যাচের ফলাফল অন্যরকম হতো।

সিরিজে প্রথমবারের মতো হারলেও সিরিজ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক। রিয়াদ বলেন, সিরিজে এখনও দুটি ম্যাচ আছে। আশা করছি আমরা ভালোভাবে কামব্যাক করবো। আমাদের প্রধান টার্গেট সিরিজ জয়।

রোববার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করে নিউজিল্যান্ড। ২০ ওভার শেষে তারা সংগ্রহ করে ৫ উইকেটে ১২৮। জবাবে সব উইকেট হারিয়ে ৭৬ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস।

১২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে আক্রমণাত্মক শুরু করেন দুই টাইগার ওপেনার লিটন দাস ও নাঈম শেখ। ২ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল বিনা উইকেটে ১৫। ম্যাককঞ্চির করা তৃতীয় ওভারে দুটি বাউন্ডারি হাঁকানোর দুই বল পর আবারও স্ট্রোক খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যায় লিটন দাস। ১৫ রান করে এলবিডব্লিউ হন বাংলাদেশের ওপেনার। এরপর শুরু হয় প্যাটেলের স্পিন ঘূর্ণি। ইনিংসের চতুর্থ ওভারে প্যাটেলের স্পিনে ধরাশায়ী হয় মাহেদী ও সাকিব।

এরপর নাঈমকেও হারানোর পর চার উইকেট হারিয়ে যখন ধুঁকছিল বাংলাদেশ; তখন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর জুটিতে আশা দেখছিল ভক্তরা। সেই স্বপ্ন শুরুর আগেই আবারও আঘাত হানেন প্যাটেল। তার পরপর দুই বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ। বাংলাদেশ অধিনায়ক ৭ বলে ৩ রান করলেও আফিফ ফেরেন ০ রানেই।

শেষ দিকে মুশফিক লড়াই করেছেন একাই। নুরুল হাসান ও সাইফউদ্দিনকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও তাকে সঙ্গ দিতে পারেনি কেউই। শেষমেশ বাংলাদেশের ইনিংস থামে ৭৬ রানে। ৩৭ বলে ২০ রান করে অপরাজিত ছিলেন মুশফিক।

কিউদের হয়ে চারটি উইকেট নিয়েছেন আজায প্যাটেল, ম্যাককঞ্চি তিনটি, রাভিন্দ্রা, স্কট ও কলিন তুলে নেন একটি করে উইকেট। সূত্রঃ যমুনা টিভি।

বিপি/আর এল