‘গোলাপের দুর্নীতি দেখবে দুদক, ইসির এখতিয়ার নেই’

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
১৫ জানুয়ারী, ২০২৩

বাংলাপ্রেস ডেস্ক: মাদারীপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আবদুস সোবাহান মিয়ার (গোলাপ) বিরুদ্ধে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় ভুল তথ্য দেয়ার যে অভিযোগ উঠেছে তা নিয়ে ব্যবস্থা নেয়ার এখতিয়ার নির্বাচন কমিশনের (ইসি) হাতে নেই বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর। রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এ কথা জানান তিনি।
এমপি গোলাপের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেবে নির্বাচন কমিশন- এ প্রশ্নে ইসি আলমগীর বলেন, ‘একটা হলফনামা আমাদের জমা দেবে প্রার্থীরা। কিন্তু সেই হলফনামার সত্য-অসত্য তথ্যের ভিত্তিতে আমাদের কোনো কিছু করার আইনের ভিত্তি নেই। হলফনামা যেটা দেবে, সেটা এক ধরনের তথ্য। জাতিকে জানানোর দায়িত্ব আমাদের। উনি (এমপি গোলাপ) হলফনামায় ভুল তথ্য দিলে নমিনেশন সাবমিটের আগে জানালে ব্যবস্থা নেব।’
আবদুস সোবহান গোলাপ ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে মাদারীপুর-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। গত ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে তিনি প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদকের পদ পান। তিনি দলের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদকও ছিলেন।
সম্প্রতি অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের বৈশ্বিক নেটওয়ার্ক ‘অর্গানাইজড ক্রাইম অ্যান্ড করাপশন রিপোর্টিং প্রজেক্ট’ (ওসিসিআরপি) ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ৪০ লাখ ডলার ব্যয়ে একাধিক বাড়ি কিনেছেন এমপি গোলাপ। বিষয়টি নির্বাচনী হলফনামায় তিনি উল্লেখ করেননি।
কমিশনার আলমগীর বলেন, ‘এই সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির যদি কিছু থাকে তাহলে দুর্নীতি দমন কমিশন দেখবে। তারা মামলা করবে। রাজস্ব বোর্ড এনবিআর মামলা করতে পারবে। পরবর্তী সময় আইনে যেটা আছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে। একজন সংসদ সদস্যের পদ হারানোর জন্য যেসব বিষয় আছে সেটা কর্তৃপক্ষ দেখবে।’
দ্বৈত নাগরিকরা সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার আলমগীর বলেন, ‘দুই দেশের নাগরিকরা ভোটে অংশ নিতে পারবেন না। তাদের বাংলাদেশ নাগরিকত্ব দেখে দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তারা আমাদের বললে আমরা সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।’

বিপি।এসএম