Home রাজনীতি ডা. জাফরুল্লাহর মৃত্যুতে রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া

ডা. জাফরুল্লাহর মৃত্যুতে রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া

by বাংলাপ্রেস ডেস্ক

বাংলাপ্রেস ডেস্ক: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে শোকাহত দেশের রাজনীতিকরা। মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) সোয়া এগারোটায় ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। এ মৃত্যুর খবরে রাজনৈতিক অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও চলছে তার স্মৃতিকৃত্য।

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর জানাজা, দাফন ও আনুষাঙ্গিক বিষয় নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে বুধবার (১২ এপ্রিল) সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে সংবাদমাধ্যমে কথা বলবেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন ও শ্রদ্ধা নিবেদন কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক আলতাফুন্নেছা। মঙ্গলবার রাতে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে তার ভক্ত, অনুরাগী ও সহচরদের সমন্বিত বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বৈঠকে অংশ নেওয়া একাধিক বিশিষ্টব্যক্তি জানান, জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুর আগেই তার মরদেহ দান করে গেছেন। সে বিষয়টি চূড়ান্ত স্পষ্ট হবে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে। এ ছাড়া জানাজা-দাফন নিয়েও বিস্তারিত কথা বলবেন অধ্যাপক আলতাফুন্নেছা। আগামী বৃহস্পতিবার (১৩ এপ্রিল) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হতে পারে মরদেহ।

মঙ্গলবার সোয়া এগারোটার দিকে জাফরুল্লাহ চৌধুরী ইন্তেকাল করেন। এদিন রাত সাড়ে এগারোটার দিকে ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ মৃত্যুর সংবাদ শুনে বেশ কয়েকজন রাজনীতিক হাসপাতালে ছুটে যান। সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা শোক বিবৃতি দেন। তাৎক্ষণিক হাসপাতালে সাংবাদিকদের সামনে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী মানুষের অকৃত্তিম বন্ধু ও দেশপ্রেমিক।’

এ সময় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু উপস্থিত ছিলেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে জানানো শোক বার্তায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেন, ‘জাফরুল্লাহ চৌধুরী ছিলেন প্রকৃত বীর। তাঁর সারাটা জীবনই বীরত্বগাঁথা। দেশের প্রতি অসীম ভালোবাসা ছিলো তাঁর। যৌবনে অসীম সাহসিকতায় গেরিলা ট্রেনিং নিয়ে অংশ নেন মহান মুক্তিযুদ্ধে। বাংলাদেশ ফিল্ড হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করে যুদ্ধাহত অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধার জীবন বাঁচিয়েছেন তিনি।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘তিনি বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে চিকিৎসা সেবা দিতে ছুটে বেড়িয়েছেন দলবলসহ। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দেশ পরিচালনার সময় ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরীর হাতেই ঔষধনীতি প্রণয়ণ করেন।’

শোক বার্তায় তিনি উল্লেখ করেন, সেই ঔষধনীতির কারণেই এখন চাহিদার ৯৬ শতাংশ ওষুধ উৎপাদন করছে দেশ। আবার প্রায় দুইশো দেশে ঔষধ রপ্তানি করছে বাংলাদেশ।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খপ্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। সরকারি গুরুত্বপূর্ণ কাজে ইউরোপ সফররত তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ তাঁর শোকবার্তায় একাত্তরে ফিল্ড হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা, জাতীয় ওষুধনীতি প্রণয়ন ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র গড়ে তুলে কম খরচে দরিদ্রদের চিকিৎসা সেবায় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর অবদানের কথা স্মরণ করেন। সমবেদনা জানান মরহুমের পরিবার ও স্বজনদের প্রতি।

গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু ও সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মতো দেশপ্রেমিক বিপ্লবীকে হারানো দেশ ও জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। তিনি সারাজীবন দেশের জনগণের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। এ দেশের মুক্তির সংগ্রাম মহান মুক্তিযুদ্ধে তার ভূমিকা অনস্বীকার্য।’

বিএনপিপন্থী ১২ দলীয় জোটের নেতারা শোকবার্তায় বলেছেন, জাতির ক্রান্তিলগ্নে সব সময় তিনি অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। তিনি মজলুমের জন্য আলোকবর্তিকা হয়ে হাজির হতেন। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশ ও গণতন্ত্রের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল।’

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া। তারা শোকবার্তায় লিখেছেন, দু:খজনক হলেও সত্য যে, জীবনের শেষ মুহুর্তে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে তাকে বৃহৎ একটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্বের নিকট হতে অবহেলা ও অপমানের শিকার হতে হয়েছে। যদিও এ জন্য তারা কখনো তার কাছে দু:খ প্রকাশ বা ক্ষমা চেয়েছেন বলে জাতি জানে না। ব্যক্তিগত যশখ্যাতি ও সমৃদ্ধির জীবনকে পেছনে ফেলে মুক্তিযুদ্ধের সময় মাটির টানে দেশে ফিরে এসে জীবনের শেষদিন পর্যন্ত লড়াই করে গেছেন স্বাস্থ্যখাতের অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম, দুর্নীতির বিরুদ্ধে।’

জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, জনস্বার্থে বাংলাদেশের সভাপতি বাবুল হোসেন জমাদার ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. ইব্রাহিম খাঁন।

বিপি/কেজে

You may also like

Leave a Comment

কানেকটিকাট, যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত বৃহত্তম বাংলা অনলাইন সংবাদপত্র

ফোন: +১-৮৬০-৯৭০-৭৫৭৫   ইমেইল: [email protected]
স্বত্ব © ২০১৫-২০২৩ বাংলা প্রেস | সম্পাদক ও প্রকাশক: ছাবেদ সাথী