বিশ্বকাপ ফুটবলে হারের জের
আর্জেন্টিনার গোলকিপার উইলি কাবায়েরোর পরিবারকে ধর্ষণের হুমকি

বাংলাপ্রেস ডেস্ক
২৩ জুন, ২০১৮


বাংলাপ্রেস অনলাইন: বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে নবাগত আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করে সমর্থকদের হতাশ করে আর্জেন্টিনা। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে হারতে হয় দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। প্রথম ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেন খোদ দলের অধিনায়ক লিওনেল মেসি। অন্যদিকে ক্রোয়েটদের বিপক্ষে খলনায়ক হন আলেবিসেলেস্তেদের গোলকিপার উইলি কাবায়েরো। প্রথম গোলটি মূলত তার বিশাল ভুলের কারণেই হজম করতে হয় হোর্হে সাম্পাওয়ালির শিষ্যদের।
গত শুক্রবার রাতে লুকা মড্রিচের দলের বিপক্ষে বিধ্বস্ত হবার পর ২১তম বিশ্বকাপ থেকে প্রথম রাউন্ডেই ছিটকে যাবার প্রবল সম্ভাবনা জাগে। আর তাই সব সমালোচনার নিশানায় চেলসির এই গোলকিপার।
দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির সমর্থকরা মাঠে থাকা অবস্থায় কাবায়েরোর অপ্রত্যাশিত কর্মকাণ্ডে অতিমাত্রায় রাগান্বিত।আর তাই ৩৬ বছর বয়সী এই ফুটবলারসহ পরিবারকে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। ২০০১ সালে বোকা জুনিয়র্সের হয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেও ক্যারিয়ারের বেশি সময় পাড় করেছেন স্প্যানিশ বি ডিভিশন দল এইচে। সেখান থেকে আর্জেন্টাইন ক্লাব আর্সেনাল সারানদি হয়ে লোনে খেলতে থাকেন। ২০১১ সালে লা লিগার ক্লাব মালাগার হয়ে খেলতে নামেন কাবায়েরো। স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে ১১৭ ম্যাটে মাঠে নামার পর যোগ দেন ম্যানচেস্টার সিটিতে। ২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত সিটিজেনদের জার্সিতে মোট ২৩টি ম্যাচে মাঠ মাতান। ওই বছর যোগ দেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আরেকটি জায়ান্ট দল চেলসিতে। ইংলিশ দলটির এই গোলকিপার অবশ্য জাতীয় দলের একনম্বর গোলকিপার নন। রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরু হবার শেষ মুহূর্তে দলের সেরা গোলকিপার সার্জিও রোমারো ইনজুরিতে পড়ায় প্রথম একাদশে সুযোগ মেলে কাবায়েরোর।

নিজেদের তৃতীয় বিশ্বকাপ মিশন শুরু করার আগে বার্সেলোনায় ক্যাম্প গড়েছিলো লাতিন আমেরিকার দেশটি। প্রায় ৩ সপ্তাহ আগে নিজের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রামে পরিবার নিয়ে ছবি পোস্ট করেন এই আর্জেন্টাইন। দুই মেয়ে গিলের্মিনা ও আইতানার সঙ্গে পোস্ট করা ওই পারিবারিক ছবির কমেন্ট সেকশনে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে হারের পর অশ্রাব্য গালিগালাজে ভরে ওঠে। এতে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। কেউ তার পরিবারের শারীরিক অসুস্থতার কামনা করেন। কেউ আবার আরও একধাপ এগিয়ে তাঁর স্ত্রী-কন্যাকে ধর্ষণের হুমকিও দেন। শুধু তাই নয় পরিবারের সদস্যদের চেহারা নিয়েও ঘৃণ্য মন্তব্য করেন। যদিও দলের গোলকিপারের এতো বড় ভুল হওয়া সত্ত্বেও মেসি বাহিনী ১৯৮১ সালে জন্ম নেয়া এই ফুটবলাররে পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন। আর্জেন্টিনার বস সাম্পাওলিও প্রকাশ্যে এই গোলকিপারকে সমর্থন দিয়েছেন। আর ইউরোপের দেশটির বিপক্ষে হারের দায়ভারও নিজের কাঁধেই নেন।

বাংলাপ্রেস/ আর এল